পঁচিশে বৈশাখ

পঁচিশে বৈশাখ

আজ তুমি কেন নির্বাক
ও আমার প্রাণের পঁচিশে বৈশাখ।
অদৃশ্য বৈরী যখন আস্ফালনে
রণ ডঙ্কা বাজিয়ে চলেছে দিকে দিকে,
ক্ষান্ত হবে কি!শান্ত হবে কি.!
মৃত্যু মিছিলের গায়ে ইতিহাস লিখে।।
ফিরিয়ে দাও ‘সোনার বাংলা ‘মোদের
“আর একবার তুমি জন্ম দাও রবীন্দ্রনাথের।। ”

যারা অকালেও রাজনীতি করে,
সঠিক পথে ফেরাও তাদের।
স্বাধীনতা আজ বিকৃত।
ক্ষুধা নিবারণের অভিনয়ে মাতে যত বেকার শিক্ষিত।।
রবিঠাকুরের কথায় গানে
রোদ্দুর ও বিদ্রুপে আঘাত হানে।
প্রতিবাদের ভাষা গেছে হারিয়ে;
বুদ্ধিজীবীদের বুদ্ধিগুলো সব মাড়িয়ে।

আকাশে বাতাসে মাটিতে কান পেতে শুনি
ঢেউ -তরঙ্গে তার অমোঘ বাণী।
অন্য ভাবে না হয় অন্য বেশে এইবার
কবি হবে আমাদের অগ্রণী জানি।
দিব্য চোখে দেখবো যখন
তুমি আছো আমি আছি আমার মতন।
সুশাসনের কাছে পরাজিত শোষণ
মুখ লুকাইছে যত স্বজন পোষণ।।

সব ছেড়ে চলে আসি সেই নির্ভিক যোদ্ধায়
পৃথিবী আবার যার ভরসায়
রচিবে নব যুগের নব অধ্যায়।
হে পঁচিশে বৈশাখ….
আগুনের লেলিহানের শিখা হতে মুক্তি পাক
ঝলসানো পাতা, ঘাস আর পাগলা হাওয়া
আর একবার পূর্ণ হোক পূর্ণ হোক
রবিঠাকুরের জনসমুদ্রে মিশে যাওয়া।।

কলমে -প্রসেনজিৎ কাঁড়ার

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top